মহেশখালীতে সামান্য কথা কাটাকাটির জের ধরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত ৩ - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Saturday, May 2, 2020

মহেশখালীতে সামান্য কথা কাটাকাটির জের ধরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত ৩

মিছবাহ উদ্দীন আরজু, মহেশখালী (কক্সবাজার) প্রতিনিধি::

মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউপিস্থ জে এম ঘাট নোয়াপাড়া এলাকায় কথা কাটাকাটির জের ধরে ধারালো অস্ত্রের অাঘাতে অন্তত ৩ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় মেহেদী হাসান (২০) কে প্রথমে মহেশখালী হাসপাতালে, পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে কর্তব্যরত ডা. তাকে চমেক হাসপাতালে রেফার করে দেয়।
ঘটানাটি ঘটেছে জুমাবার ২ মে রাত অনুমানিক ৭.৩০ টার সময়।

জানা যায়, শাপলাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ডা. ওসমান সারওয়ার এর ছোট ভাই আসিফ-এর সাথে একই এলাকার মেহেদী হাসান (২০) নামের এক যুবকের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আসিফ, সারওয়ার, শাহেদ হোছাইন, হান্নান, রাশেদ, জোসান মিলে মেহেদী হাসানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও চোখে প্রচন্ড আঘাত করে। খবর পেয়ে ২নং ওয়ার্ড মেম্বার মহেশখালী উপজেলা যুবলীগের সদস্য আবদুস সালাম ও তার বড় ভায় জাকারিয়া ঘটনাস্থলে পৌঁছলে এক পর্যায়ে তাদের উপরেও চড়াও হয়। আবদুস সালাম বেঁচে গেলেও জাকারিয়া আহত হয়।

আহতরা হলেন- মেহেদী হাসান (২০), জিদান(১৬), জাকারিয়া (৫৫)। 

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ২ নং ওয়ার্ড মেম্বার আবদুস সালামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন- হঠাৎ খবর পেলাম বাহিরে মারামারি হচ্ছে তখন আমি ও আমার বড় জাকারিয়া ঘটনাস্থলে পৌছে উভয় পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করি। এবং তাঁদেরকে বলি এখন নামাজের সময় সমস্যা আগামীকাল উভয়ে বসে সমাধান করে দিবো। সেটা বলতে না বলতে তারা আমাদের উপর চড়াও হয় এক পর্যায়ে আমার বড় ভাইকেও আঘাত করে।

আহতদের পরিবার প্রশাসনকে ঘটনার সঠিক তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির আবেদন জানাচ্ছে। 

মহেশখালী থানার ওসি প্রবাস চন্দ্র ধর বলেন, ঘটনাস্থলে আমাদের টিম পাঠিয়েছি সঠিক তদন্ত করে অপরাধীদের দ্রুত বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

No comments:

Post a Comment

Pages