আবারও চালু হলো খুলনাঞ্চলের রাষ্ট্রয়াত্ত্ব পাটকল ||amarkhobor24.com - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Sunday, April 26, 2020

আবারও চালু হলো খুলনাঞ্চলের রাষ্ট্রয়াত্ত্ব পাটকল ||amarkhobor24.com

এক মাস পর খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল আজ রোববার (২৬ মে) থেকে আবার চালু হয়েছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে পাটকলগুলোতে গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ছিল। শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে মিল চালানো হবে বলে মিলের কর্মকর্তারা জানান। সরকারের খাদ্য বিভাগের বস্তা সরবরাহের জন্য  খুলনাঞ্চলের ৮ টি জুট মিল আংশিক ভাবে চালু হয়েছে। রোববার সকালে খুলনার পাটকল গুলোর গেটদিয়ে শ্রমিকরা মিলে প্রবেশ করে ভোর ৬ টা থেকেই উৎপাদন শুরু করে। উৎপাদন শুরু হওয়া পাটকলগুলো হচ্ছে- ক্রিসেন্ট জুট মিল, খালিশপুর জুট মিল, দৌলতপুর জুট মিল, প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিল, স্টার জুট মিল, আলিম জুট মিল'  ইস্টার্ন জুট মিল  ও জেজেআই জুট মিল। বিজেএমসির খুলনা আঞ্চলিক সম্বয়কারী মোঃ বনিজ উদ্দিন মিঞা জানান, খাদ্যবিভাগ ও বিএডিসির জরুরী বস্তা সরবরাহের জন্য খুলনার কার্পেটিং জুটমিল ছাড়া অন্য সবকটি মিল আংশিক ভাবে চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেএমসি। যে কারনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গত ২৬ মার্চ থেকে মিল বন্ধ থাকার পর আজ আবার চালু হল। তবে মিলগুলোতে সতর্ক ভাবে দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করছে শ্রমিকরা বলে জানান   মিলের  প্রকল্প প্রধানরা।  
বিজেএমসি’র তথ্য অনুযায়ী, খুলনা অঞ্চলের ৯টি পাটকলে প্রায় ১০ হাজার স্থায়ী শ্রমিক রয়েছেন। বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ শুরু হলে গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটির আওতায় পাটকল বন্ধ রাখা হয়। তবে চাল ও বীজের মোড়কে পাটজাত বস্তার সংকট তৈরি হলে সীমিত আকারে পাটকলগুলো চালুর উদ্যোগ নেয় বিজেএমসি। গত ২৩ এপ্রিল প্লাটিনাম জুট মিলের বোর্ডরুমে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের প্রকল্প প্রধানদের সাথে শ্রমিক নেতাদের বৈঠকে পাটকল চালু বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। তবে শনিবার (২৫ এপ্রিল) বিকালে বৈঠক করে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় শুধুমাত্র স্ব স্ব মিল কলোনীতে অবস্থানরত শ্রমিকরাই কাজে যোগ দিতে পারবে এই মর্মে সিদ্ধান্ত হয়। পাটকল চালু হলেও করোনার কারণে বিদেশে এখনই পাটপন্য বিক্রির সুযোগ নেই। তবে খাদ্য অধিদপ্তর ও বিএডিসি’র চাহিদা অনুযায়ী বস্তা তৈরি হলে দেশের অভ্যন্তরে তা’ বিক্রি করা যাবে। এতে বকেয়া পরিশোধ করা সহজ হবে।

No comments:

Post a Comment

Pages