বিয়েতে গায়ে হলুদের নামে ইসলাম বিরোধী কার্যক্রম বন্ধের দাবী ||amarkhobor24.com - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Monday, March 9, 2020

বিয়েতে গায়ে হলুদের নামে ইসলাম বিরোধী কার্যক্রম বন্ধের দাবী ||amarkhobor24.com

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ গান,বাদ্য,বাজনাকে ইসলাম হারাম ঘোষনা দিয়েছেন।কোনো ঈমানদার মুসলমানদের মাঝে এসব অভ্যাস বিদ্যমান থাকা মানেই সে শয়তান দ্বারা প্রভাবিত এতে সন্দেহ নাই।

আগামীকাল বিয়ে আর আজ রাতে গায়ে হলুদ তাই ডিজে পার্টি,ধুরুম ধুরুম আওয়াজে গান পরিবেশনের সাথে সাথে অশ্লীলতার নাচ তাও আবার কিশোর ও যুবকদের সাথে কিশোরী বা যুবতীদের সম্পৃক্ততায় অনুষ্ঠিত না হলে কি স্ট্যাটাস বজায় থাকে!
আমাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে এসব কৃষ্টিকালচার কোন হাদীস ও কুরআনের দলীল দিয়ে করি আমরা?

এতে করে মানুষের আরামকে নষ্ট করা হয় রাতের অনেকটা পার করে।ইবাদত নষ্ট হয় সেখানকার ৯৯% নারী পুরুষের।বিয়েকে ফরজ হিসেবে চিহ্নিত করে বিয়ে করতেছে যারা গান বাদ্য বাজনার পর ফজরের নামাজ ফরজ হওয়া স্বত্বেও সেই নামাজ না পড়ে ঘুমাচ্ছে তারা।আহ কি বেঈমানী কাজ আল্লাহর সাথে!

একসময় এসব ধরনের পাত্র-পাত্রীদের ডিভোর্স,পরকীয়া,মারামারী অতঃপর সংসার নষ্ট হয়ে যায়।শালীস বিচারের মুখোমুখি হয়ে হারাতে হয় ইজ্জত,অর্থ,মান-সম্মান।শুনতে হয় দুয়োধ্বনি। 

এই সব নষ্ট কালচার বন্ধে এলাকার মেম্বার,কমিশনার,চেয়ারম্যান,এমপি তথা মন্ত্রীদের উচিৎ সজাগ হওয়া।মনে রাখতে হবে এলাকায় শুধু বেহায়ারা বসবাস করেনা বরং ৯২ ভাগ মুসলমানদের মাঝে খাঁটি ঈমানওয়ালাওরা বসবাস করে।কিন্তু সমাজপতিরা আজ বেহায়াদের অশ্লীলতায় ভ্রুঁক্ষেপ না করে ঈমানদার ও ইনসাফ ওয়ালাদের কার্যক্রমে বাঁধা দেয়।

সচেতনদের হয়ে আমি বলতে চাই প্রশাসন ও সরকার প্রতিনিদের কাছে যেনো বিবাহের অনুষ্ঠানে বা গায়ের হলুদের নামে গান,বাদ্য বাজনা,নাচানাচি বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হয়।
বাঁচুক সমাজ অশ্লীলতা থেকে
দেখুক সমাজ সত্যের সভ্যতাকে।

লেখক,
 মুহাম্মাদ রবিউল ইসলাম  
বিশিষ্ট লেখক কলামিস্ট ও সাংবাদিক  

No comments:

Post a Comment

Pages