আল্লামা মুফতি ফয়জুল করিম, আল্লামা মামুনুল হক নেতৃদ্বয়ের প্রতি তরুণদের প্রত্যাশা ||amarkhobor24 - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Wednesday, March 11, 2020

আল্লামা মুফতি ফয়জুল করিম, আল্লামা মামুনুল হক নেতৃদ্বয়ের প্রতি তরুণদের প্রত্যাশা ||amarkhobor24

ফেসবুকে, ইউটিউবে, অনলাইন,  অফলাইনসহ সর্বমহলে নেতৃদ্বয়ের আলোচনা। তাদের বক্তব্য, বিবৃতির প্রশংসা। নিজ নিজ ভক্তরা তো  নিজেদের শায়খদের নিয়ে গর্বিত,  আন্দোলিত। এমন লাখো তরুণ রয়েছেন, যারা উভয়কে একসঙ্গে দেখতে চান। উভয়ের যৌথ হুংকার চান। তাগুতের মসনদ কম্পনে একসঙ্গে জিহাদের আহবান চান। তারা উভয়ে বড় আলেম, বড় বক্তা, বুলন্দ হিম্মতের অধিকারী, বাস্তববাদী।

তবে আল্লামা মুফতি ফয়জুল করিমের আছে একটি শক্তিশালী সংগঠন। যার আছে লক্ষ লক্ষ কর্মীবাহিনী। এবং তৃণমূল পর্যায়ে নেতৃত্ব দেয়ার মতো চৌকস নেতৃত্ব।  যা আল্লামা মামুনুল হক সাহেবের নেই।

আল্লামা মুফতি ফয়জুল করিম জিহাদি জজবা সৃষ্টিকারি বক্তব্যের সাথে সাথে তার আছে রূহানী বয়ান। যার দ্বারা লাখো লাখো যুবক আধার থেকে আলোর পথে এসে জীবনের মোড় পাল্টান। আল্লামা মামুনুল হক সাহেবের জিহাদি জজবা সৃষ্টিকারি  বক্তব্য থাকলেও দ্বিতীয়টি নেই।

যুক্তিসঙ্গত কারণে মুফতি ফয়জুল করিম সাহেব আল্লামা মামুনুল হক সাহেবের দলে যোগদান করাটা বেমানান, অসম্ভব। বা এতে উপকার হয়তো সেরকম হবে না।

আর দুইজন দুই দলে থেকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার যে বিষয়টি তা বর্তমান সময়ে এক ধরনের অসম্ভব। বা বিষয়টি আলোচনায় আনা সেই চর্বিত চর্বণ,  পুরাতন কথা। যার প্রতি কারো আস্থা নেই। এখন দৃঢ ঐক্যের, শক্তিশালী নেতৃত্বের, আশা জাগানিয়া ভূমিকার পথ  একটি। তাহলো ঐক্য না হয়ে এক দলের হয়ে যাওয়া। http://bit.ly/2vWblLy

আর এজন্য প্রথম করণীয়, আল্লামা মুফতি ফয়জুল করিম শায়েখে চরমোনাইর। তিনি আল্লামা মামুনুল হক সাহেব কে দাওয়াত দেবেন। আর আল্লামা মামুনুল হক সাহেব এর করনীয় হল দাওয়াত কবুল করা। এতে মুফতি ফয়জুল করিম পেয়ে যাবেন, দ্বীন প্রতিষ্ঠার পথে তার একজন শক্তিশালী সহযোগী। আর আল্লামা মামুনুল হক সাহেব পেয়ে যাবেন তেত্রিশ বছরের তিলে তিলে গড়ে ওঠা একটি সংগঠন এবং লক্ষ লক্ষ বিপ্লবী কর্মীবাহিনী। 

উভয় শক্তির সম্মিলনে আজ না হয় কাল, ৯২ ভাগ মুসলমানদের দেশে উড়বে তাগুতের ধ্বংসস্তুপের ওপর ইসলামের বিজয় পতাকা। শুধু প্রয়োজন একটু ত্যাগ ও কোরবানীর। ইখলাস ও লিল্লাহিয়্যাতের। বিনয় ও নিবেদনের। তবে ইতিহাস রচিত হবে হাজার বছরের।বাস্তবতা যতোটুকু উপলব্ধি করলাম তা থেকে দুটি কথা লিখলাম। আল্লাহ যেন কবুল করেন।

লেখক: মাওলানা আবদুর রাজ্জাক
নির্বাহী সম্পাদক -মাসিক বিকিরণ 
মুহাদ্দিস -নুরপুর মাদ্রাসা,ফেনী

No comments:

Post a Comment

Pages