রামগঞ্জে ভ্রাম‍্যমান আদালতের অভিযান, অবৈধ ট্রলির বিরুদ্ধে ৬ মামলা ||amarkhobor24 - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Monday, March 2, 2020

রামগঞ্জে ভ্রাম‍্যমান আদালতের অভিযান, অবৈধ ট্রলির বিরুদ্ধে ৬ মামলা ||amarkhobor24

রামগঞ্জ উপজেলার অধিকাংশ রাস্তাঘাট ঝরাজীর্ণ ও দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপোযোগী। তার উপর ব্রীকফিল্ডের ইট ও মাটি বহন করতে গিয়ে দানবীয় চাকার ট্রলির কারনে পিষ্ট হচ্ছে মাটির সড়কগুলো। ধুলোবালির কারনে স্কুল কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়দের চলাচলে মারাত্মক দূর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অনুমোদনবিহীন ৬চাকার এ অবৈধ ট্রলি। স্থানীয়দের অভিযোগ আর সদ্য তৈরি বেশ কিছু সড়ক ট্রলির চাকায় পিষ্ট হয়ে গর্তের সৃষ্টি হলে নড়েচড়ে বসে উপজেলা প্রশাসন।
ট্রলি চলাচলে সরকারী বিধিনিষেধ সংক্রান্ত পরিপত্র নিয়ে আজ রবিবার বিকালে মাঠেন রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুনতাসির জাহান। বিকাল ৫টায় রামগঞ্জ পুলিশ বক্স চত্বর ও বালুয়া চৌমুহনি সড়কে অবৈধ ট্রলি, রুট পারমিট ও লাইসেন্স বিহীন জননী পরিবহনকে ২৮৫০০টাকা জরিমানা ও অবৈধ ট্রলি ও জননী বাসের বিরুদ্ধে ৭টি মামলা দায়ের করেন।
উপজেলা প্রশাসনকে সহযোগীতা করেন, সার্জেন্ট মোঃ মামুন ও রামগঞ্জ থানার এস আই মহসিন চৌধুরী।
অবৈধ ট্রলি ও চালক এবং জননী পরিবহনকে জরিমানা ও ৭টি মামলা দায়ের করায় রামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়ে অনেকেই জানান, আমরা আশা করছি এ ধারা অব্যাহত থাকবে। কোন অদৃশ্য শক্তির বেড়াজালে যেন এ ধরনের অভিযান বন্ধ হয়ে না যায়। জাতীয় সংসদের মাননীয় সাংসদ ড. আনোয়ার হোসেন খাঁন অক্লান্ত পরিশ্রম করে ঝরাজীর্ণ সড়কগুলো সংস্কার করছেন, অথছ একটি মহল অধিক মুনাফার লোভে ট্রলি দিয়ে সুনাম ক্ষুন্ন করছেন। এটা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মুনতাসির জাহান জানান, সরকারী জানমালসহ মানুষের ক্ষতি সাধিত হয় এ ধরনের কাজে সবসময়ই আমি প্রস্তুত রয়েছি। অবৈধ ট্রলিসহ রুট পারমিট ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যাতিত কোন গাড়ী চলাচল করতে পারবে না। এসময় তিনি জমির টপসয়েল (মাটির উপরের অংশ) ব্রীকফিল্ডে বিক্রি না করতেও কৃষক ও জমির মালিকদের প্রতি অনুরোধ জানান।

No comments:

Post a Comment

Pages