নড়াইলের পল্লীতে সংঘর্ষ আহত ১১ বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ আটক-৮ - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Saturday, February 1, 2020

নড়াইলের পল্লীতে সংঘর্ষ আহত ১১ বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ আটক-৮

উজ্জ্বলরায় নড়াইল থেকেঃ নড়াইলের পল্লীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মহিলাসহ কমপক্ষে ১১ জন আহত হয়েছেন। এ সময় চারটি বাড়ি ও দু’টি দোকানঘর ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। উজ্জ্বলরায় নড়াইলথেকে জানান, এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান এবং জেলা পরিষদ কাউন্সিলর শেখ সুলতান মাহমুদ বিপ্লবের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে শুক্রবার রাতে চেয়ারম্যান মতিয়ার সমর্থিত মিরাজ মোল্যা ও সাবেক মেম্বার শরীফুলের নেতৃত্বে চালিঘাট গ্রামের সাইফুর রহমান ছাইফার শেখ ও তার ছেলে তারিকুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম ও রেজাউল ইসলাম, গন্ডব গ্রামের দেলোয়ার শেখের ছেলে তবিবুর রহমান সুইট ও সুগার শেখ, তকছির মোল্যার ছেলে কুবাদ মোল্যা, আতিয়ার মোল্যা ও তার ছেলে সাইফুল মোল্যা ও শরীফুল মোল্যা, জাফর মোল্যার ছেলে শিমুল মোল্যা, আহম্মেদ মোল্যার ছেলে হান্নান মোল্যা, আকছির মোল্যার ছেলে জাকির মোল্যা, কাদের কাজী, মৃত কালা মিয়া শেখের ছেলে আব্দুল হাই শেখ, মৃত শেখ রুহুল আমিনের ছেলে মটুক শেখ, হাসমত শেখ, ও মাহমুদ শেখ, খালেক শেখের ছেলে মিজান শেখ, আব্দুল হাই শেখের ছেলে মিলন শেখ, মৃত মোকসেদ শেখের ছেলে ইউনুচ শেখ, আতিয়ার মোল্যার ছেলে সাইফুল মোল্যা, ওহিদ মোল্যার ছেলে সোহাগ মোল্যা, কাউছার মোল্যার ছেলে ইলান মোল্যা, মৃত সৈয়দ রওশন আলীর ছেলে সৈয়দ নয়ন আলী, আব্দুল হাই শেখের ছেলে মিলন শেখ, মৃত মাজেদ মোল্যার ছেলে মোক্তার মোল্যা, মতিয়ার রহমানের ছেলে ইকরামুল হক ও মৃত জাফর মোল্যার ছেলে শিমুল মোল্যা। বাহিরপাড়া গ্রামের বোরহান মোল্যা ও তার ছেলে আলাউদ্দিন মোল্যা ও শাহাবুদ্দিন মোল্যাসহ দেড় থেকে দু’শ লোকজন দেশীয় অস্ত্র ঢাল, সড়কি, বল্বভ, রামদা, চা-পাতি ও লাঠি সোটা নিয়ে সুলতান মাহমুদ বিপ্লব সমর্থিত ছলেমান মেম্বারের লোকজনদের ওপর রাতের অন্ধকারে অতর্কিত ভাবে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট ও বেধড়ক মারপিট করে পালিয়ে যায়। হামলায় বিপ্লব পক্ষীয় ১১ জন আহত হয়। আহতরা হলেন, আরিফা সুলতানা, ইয়াসমিন, কমেলা বেগম, জোসনা বেগম, নাসিমা বেগম, হামিদা, জিরু শেখ, লিটন শেখ, ছলেমান, ফরিদ ও জুয়েল। এ সময় ছলেমান, জিরু শেখ, সোহরাব শেখ, বুলু কাজীর বাড়িঘর ও শামীম মোল্যা ও আহম্মেদ শেখের দোকানঘর ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাট সহ তান্ডব চালায় তারা। গুরুত্বর আহত জিরু শেখকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সোয়া সাতটার দিকে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমনা খানম তৎক্ষনাৎ তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এবং রাতেই পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ জসীম উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বর্তমানে এলাকায় অরিক্তিত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এদিকে শনিবার দুপুর দুইটার দিকে পুলিশ সুপারের নির্দেশে নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান দেশীয় অস্ত্রসহ হামলাকারির ৮জনকে গ্রেফতার করেছেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, গন্ডব গ্রামের আতিয়ার মোল্যার ছেলে সাইফুল মোল্যা, ওহিদ মোল্যার ছেলে সোহাগ মোল্যা,কাউছার মোল্যার ছেলে ইলান মোল্যা, মৃত সৈয়দ রওশন আলীর ছেলে সৈয়দ নয়ন আলী, আব্দুল হাই শেখের ছেলে মিলন শেখ, মৃত মাজেদ মোল্যার ছেলে মোক্তার মোল্যা, মতিয়ার রহমানের ছেলে ইকরামুল হক ও মৃত জাফর মোল্যার ছেলে শিমুল মোল্যা।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দোষিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।শুক্রবার (৩১জানুয়ারী) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গন্ডব গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। উজ্জ্বলরায় নড়াইল থেকে।


No comments:

Post a Comment

Pages