উচ্ছেদ মাইকিং শুনে আটোয়ারী উপজেলার ব্যবসায়ীরা হতাশায় ভুগছে- হতাশাগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Sunday, February 23, 2020

উচ্ছেদ মাইকিং শুনে আটোয়ারী উপজেলার ব্যবসায়ীরা হতাশায় ভুগছে- হতাশাগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:-
পঞ্চগড়ে  আটোয়ারীতে জেলা পরিষদ কর্তৃক উচ্ছেদ অভিযানের মাইকিং শুনে ব্যবসায়ীরা হতাশায় ভুগছে।

 হতাশাগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা জানান, বছরের শুরুতেই (২০২০ সন) জেলা পরিষদ পঞ্চগড় কর্তৃক  আটোয়ারী উপজেলায় জেলা পরিষদের রাস্তার দুই পার্শ্বে নয়নজলি জমি লিজ দেয়া হবে মর্মে ব্যাপক মাইকিং করা হয়।
 লিজের আবেদনের শেষ তারিখ ছিল ১০ জানুয়ারি ২০২০ ইং। এতে অনেক লিজ গ্রহিতার আবেদন জেলা পরিষদে জমা হয়।

 পরে ১৪ ও ১৫ ফেব্রুয়ারি দু’দিন ব্যাপি নয়নজলির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মাইকিং করা হয় এবং জেলা পরিষদের সীমানা পিলার(খুটি) বসানো হয়। 

মাইকিংয়ে প্রচার করা হয়,‘ উপজেলার মহিলা কলেজ মোড় হতে ফকিরগঞ্জ বাজার হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ মোড় পর্যন্ত পঞ্চগড় জেলা পরিষদ মালিকানাধীন রাস্তার ২ পার্শ্বে যে সকল অবৈধ স্থাপনা বাড়ীঘর ও দোকান পাট রহিয়াছে, তাদেরকে অবৈধ স্থাপনা আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখের মধ্যে সরায় নেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হইল।


 অন্যথায় আজ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখ হইতে সরকারি বিধি অনুযায়ি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে আইনানুগ ব্যবস্থা সহ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে- আদেশক্রমে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ পঞ্চগড়’। 

উচ্ছেদ অভিযানের প্রচার মাইকিং শুনে অনেক ব্যবসায়ী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে বিপাকে পড়েছেন।

 এ মহুর্তে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে কোথায় যাবে তারা।

 নিরুপায় হয়ে ফকিরগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ীরা উচ্ছেদ অভিযান না করার জন্য উপজেলার প্রশাসনিক অভিভাবক উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত আবেদন করেন।

 এব্যাপারে জেলা পরিষদ সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমান বকুল বলেন, জেলা পরিষদের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বিষয়টি সম্পুর্ণ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এখতিয়ার। আমি এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট নই। 

তবে উন্নয়নমুলক কাজের ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র স্বার্থ ত্যাগ করে বৃহত্তর স্বার্থে উচ্ছেদ ব্যাপারে সবার সহযোগিতা করা দরকার। 

জেলা পরিষদ কর্তৃক আটোয়ারীতে জেলা পরিষদের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা কিছুই জানেন না বলে আমদের প্রতিনিধিকে জানান। 

 ফকিরগঞ্জ বাজার সহ রাস্তার দু’পার্শ্বের অনেক ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে জেলা পরিষদ থেকে জায়গার লিজ নিয়ে বৈধভাবে ব্যবসা চালিয়ে আসছিল।  

হঠাৎ উচ্ছেদের প্রচার মাইকিং শুনে তারা আৎকে উঠেছে।

No comments:

Post a Comment

Pages