মান্দার সাকিদারের মোড়ের ট্রাক ড্রাইভার সহিদুল স্ট্রোক করে মৃত্যুবরণ করার পরেও অাত্মহত্যা বলে অপপ্রচার! - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Sunday, February 9, 2020

মান্দার সাকিদারের মোড়ের ট্রাক ড্রাইভার সহিদুল স্ট্রোক করে মৃত্যুবরণ করার পরেও অাত্মহত্যা বলে অপপ্রচার!

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দায় প্রসাদপুর ইউপি'র  গোবিন্দপুর গ্রামের অন্তর্গত  সাকিদারের মোড়ের দক্ষিণ পার্শ্বের  এক যুবক নিহতের খবর পাওয়া গেছে। 

নিহত  সহিদুল ইসলাম (৩৫) ওই গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য, নিহত সহিদুলের  বৈবাহিক জীবনে তার এক স্ত্রী এবং সাতবছর বয়সী একটি ছেলে অাছে। অার একটি মেয়ে হয়ে মারা গেছে বলে জানায় নিহত সহিদুলের স্ত্রী ডলি অাক্তার। 

 
সরেজমিন গিয়ে শহিদুলের স্ত্রী এবং অন্যান্য লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, সহিদুল ইসলাম পেশায় একজন ট্রাক ড্রাইভার।  তিনি  চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাক চালাতেন। বর্তমানে তিনি নওগাঁতে বাসের হেলপার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বাসে ডিউটি করে ২/৩ দিন পরপর বাড়ি ফিরে অাসতেন এবং অাবার কাজে যেতেন। কিন্তু অাজ শুক্রবার তিনি বাড়িতেই ছিলেন। জুমার নামায অাদায় শেষে  দুপুরের ভাত খেয়ে সতিহাট বাজার থেকে মাছ তরকারী কিনে এনে স্ত্রীকে রান্না করতে বলে বাড়ির ভিতর বারান্দায় দাঁড়িয়ে মাথা ঘোড়ার কথা বলতে বলতে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন। এমতাবস্থায় তার শারিরিক অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক)  তাকে স্থানান্তর করার নির্দেশ দেন। ডাক্তারী নির্দেশনা মোতাবেক সহিদুলের স্বজনরা তাৎক্ষণিকভাবে এ্যাম্বুলেন্স যোগে রামেকের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। মাঝপথে পৌঁছতে না পৌঁছতেই সাবাইহাট  এলাকায় গিয়ে তার ছটফটানিতে বাধ্য হয়ে গাড়ি দাঁড় করিয়ে স্থানীয় এক গ্রাম্য ডাক্তারকে দেখানো হয়। ডাক্তার তাকে দেখার পর মৃত ঘোষনা করেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছাঁয়া নেমে অাসে। সেইসাথে কিছু অত্র এলাকার স্থানীয় কিছু  লোকজন তার মৃত্যুকে অপমৃত্যু বা সে গ্যাসবড়ি খেয়ে অাত্মহত্যা করেছে  বলে অপপ্রচার করতে থাকে। এনিয়ে বেশ ধ্রুম্রজালের সৃষ্টি হয়। জনমনে প্রশ্ন দেখা দিতে থাকে যে, অাসলে মৃত্যুটি স্বাভাবিক কি-না? অনেকে মনগড়া তথ্যের ভিত্তিতে এই বলে  বলাবলি করতে থাকে  যে লোকটি গ্যাসবড়ি খেয়ে অাত্মহত্যা করেছে। অাবার কেউ কেউ অাজে বাজে মন্তব্য করতে থাকে এই বলে যে, হয়তোবা লোকটি যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট খেয়ে স্ট্রোক করে মারা গেছে। অাসলে সত্যটা কি? এই বয়সে এমন মানুষটির মৃত্যু সত্যিই অপ্রত্যাশিত।অাগামীকাল শনিবার সকালে তার নিজ বাড়িতে নামাযে জানাজা শেষে তাকে কবরস্থ করা হবে বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন।

এব্যাপারে জানতে চাইলে মান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফ্ফর হোসেন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনিও অবগত নয় যে লোকটি অাত্মহত্যা করেছে কি-না? তার জানামতে লোকটি হার্ট স্ট্রোকে মারা গেছেন। বিষয়টি তাকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বেলাল হোসেন খাঁন নিশ্চিত করেছেন বলে জানান তিনি।#

07/02/2020

No comments:

Post a Comment

Pages