রামগঞ্জে ইটভাটার মাটির ঢালে ট্রলির চাক্কায় শ্রমিকের মৃত্যু,গ্রেফতার ১ - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Monday, February 17, 2020

রামগঞ্জে ইটভাটার মাটির ঢালে ট্রলির চাক্কায় শ্রমিকের মৃত্যু,গ্রেফতার ১

রামগঞ্জ নিউজ ডেস্ক : 
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউপি লক্ষ্মীধর পাড়া গ্রামের এমবিএম ইটভাটার৷ ঝুঁকিপূর্ণ  ঢালে ট্রলির চাক্কায় মো: সিদ্দিক মিয়া (৪৮) নামক শ্রমিকের মৃত্যু ঘটনায় ট্রলির মালিক ইলিয়াছকে গ্রেপ্তার করেন রামগঞ্জ থানা পুলিশ। সৃষ্ট ঘটনায় ট্রলির মালিক ইলিয়াছের সর্বোচ্চ শাস্তি,ভাটার মালিক মানিক হোসেনকে গ্রেপ্তার দাবী সহ ওই ইটভাটা বন্ধ,ট্রলি নিষিদ্ধের জোরালোভাবে দাবী করছেন স্থানীয়রা। 
সূত্রে জানান ভোলাকোট ইউপি হোসেন মেম্বারের ছেলে ইলিয়াস হোসেন গত কয়েকবছর যাবত উপজেলার চাটখিল ও শাহরাস্তি নিষিদ্ধ ট্রলি ভাড়া নিয়ে লক্ষ্মীধর পাড়া মোতালেব ব্রিকস ফিল্ডে মাটি বহন করে। অধিক কমিশন লোভে  নিত্যদিনেই বেপরোয়া গতিতে  ড্রাইভার,শ্রমিক মাটি বহন করলেও দানব ট্রলি কারণে সড়কের বেহালদসা, শব্দ ও বালু দুষিত হচ্ছে।
এতে স্কুল কলেজসহ শিক্ষার্থী, পথিক চলাচলে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হচ্ছে।
নিহত ছিদ্দিক মিয়া রামগঞ্জের পাশ্ববর্তী চাটখিল উপজেলার কড়ি হাট গ্রামের মানিক মিয়ার ছেলে।
নিহতের স্বজন আব্দুল মেতালেব,বিলাল হোসেন টেলিফোনে জানান নিহত ছিদ্দিক মিয়া ট্রলির  মালিক ইলিয়াছ হোসেনের কমিশনে গাড়ীতে কাজ করছেন।
তার কাছে দেনা পাওনার বড় হিসেব রয়েছে। ট্রলির অবহেলা ও গাফিলতের কারণে ছিদ্দিক মিয়ার মৃত্যু হয়।
সরজমিনে দেখাযায় দশঘরিয়া - পানিয়ালা সড়কের পাশ্বে ইটভাটার মালিক ভেকু দিয়ে মাটি খনন করে গভীর গর্ত করেন। 
গর্তের দুপাশে পাহাড়ে মত ঢাল দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ  ট্রলি উপরে উঠতে থাকে।
ট্রলি মাটি বহন করে বেপরোয়া গতি ঢাল  অতিক্রম করে উপরে উঠতে চাহিলে ট্রলি পল্টি খেয়ে পিছনে অংশ ভেঙ্গে যায়।
ট্রলির মালিক ও ভাটার মালিক তড়িগড়ি তাকে রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে না নিয়ে ঘটনাটি ধাপাচাপা দিতে চাটখিল হাসপাতালে নেওযার পথে শ্রমিকের মৃত্যু হয়। স্থানীয়দের অনুরোধে থানা পুলিশ ট্রলির মালিক ইলিয়াস হোসেনকে আটক করলে তাকে সর্বোচ্ছ শাস্তি দাবী করেন। অপরদিকে ইটভাটার মালিককে দ্রুত গ্রেপ্তার না করলে ট্রলি ও ভাটার মালিককে গ্রেপ্তারের দাবীতে বিক্ষোভ কর্মসূচী দিবে বলেন লক্ষ্মীধরপাড়া,দেবনগর,অাথাকরা, মুক্তারপুর গ্রামের কয়েকজন গ্রামবাসি।
আব্দুল জব্বার, কামরুজ্জামান,আব্দুল মতিন জানান গত দুই বছরে এমবিএম ব্রিক ফিল্ডে দুই যুবকের লাশ উদ্বার করলেও অদৃশ্য শক্তির কারণে ভাটার মালিককে কেন জিজ্ঞেস করেন না তাহা সাধারণ মানুষের মনে নানা প্রশ্ন।
আলোচিত ভোলাকোট ইউপি যুবলীগের নেতা রাছেলের গলিত লাশ গত দুই বছর আগে ইটভাটার সংলগ্ন ভাটার মালিকে জলাশয় থেকে উদ্বার করেন পুলিশ।
ইলিয়াস হোসেন বাবা হোসেন মেম্বার জানান পুলিশ আমার ছেলেকে আটক করছেন। ঘটনার পুরো ঘটনা তিঁনি জানেন না।
মাটি ব্যবসায়ী বিলাল হোসেন জানান গ্রেপ্তারকৃত ইলিয়াস হোসেন আমার ভাতিজা।
ভাটার মালিক ও ট্রলিক মালিককে সেভ করতে তিনি ঘটনার পর থেকে সেখানে পাহারা দিচ্ছেন।
ইটভাটার মালিক বলেন ঘটনাটি জন্য তিনি চিন্তিত রয়েছেন বলেই অফিসের অন্য কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন।

No comments:

Post a Comment

Pages