আযহারীর সেই ছবিটি মালয়শিয়াতে নয়,কাতার এয়ারপোর্টের পুরাতন ছবি ||amarkhobor24.com - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Sunday, February 9, 2020

আযহারীর সেই ছবিটি মালয়শিয়াতে নয়,কাতার এয়ারপোর্টের পুরাতন ছবি ||amarkhobor24.com

বিশেষ সংবাদদাতা, কাতার ঃ
সম্প্রতি নানা কারণে আলোচিত ভাইরাল বক্তা   মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারী লেখাপড়ার জন্য মালয়েশিয়ায় চলে আসেন।   তিনি বাংলাদেশ থেকে   চলে আসার  পর পুরাতন একটি ছবিকে মালয়েশিয়া এয়ারপোর্টে ভক্তদের ভীর বলে চালিয়ে দিয়ে ব্যাপক হাইলাইটস করে রং মিশিয়ে  প্রচার করছে জামায়াত শিবির পন্থী বিভিন্ন পেইজে।  
এদিকে অনুসন্ধান সুএ মতে দেখা গেছে,  সেই ছবিটি ২০১৯ সনের রমজান মাসে আযহারীর কাতার সফরের সময়কার। ছবিটি   কাতারের দোহা হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের।  সেই সফরের সময় আযহারীর সাথে ছবিতে  উপস্থিত  ছিলেন এমন কয়েকজন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।    

ছবিতে ছিলেন এমন একজন মাওলানা আহমেদ উল্লাহ হাফিজ বলেন, গতবছর রমজানে আযহারী সাহেব কাতার আসলে আমরা কিছু প্রবাসী তাকে স্বাগত জানিয়েছিলাম। কিন্তু সেই পুরাতন ছবিকে মালয়েশিয়া এয়ারপোর্ট বলে  জামাত শিবিরের কিছু ভাইরা অতি বাড়াবাড়ি করে ভাইরাল করছে। তাদের অতিউৎসাহী বাড়াবাড়িতে মুলত আযহারী হুজুরের ইমেজ ক্ষুন্ন হচ্ছে। অন্ধভক্ত হয়ে মিথ্যা প্রচার  করা ঠিক না।    

ছবিতে ছিলেন আরো একজন  ওয়ালি উল্লাহ নোমান, তিনি বলেন, ওনি জনপ্রিয় বক্তা ঠিক আছে, তাই বলে পুরাতন ছবি দিয়ে মিথ্যা ছড়ানোটা ঠিক হয়নি।  
তিনি আরও বলেন, আযহারী সাহেবকে শুধু  একজন বক্তা হিসাবে ভালোবাসি, তিনি কোন দলের অনুগত সেটা আলাদা ওনার নিজস্ব বিষয়।  তাকে দলে জড়ানো ঠিক না। ওয়াজের জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে  জামাত শিবিরের কিছু লোকজন রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে আযহারী হুজুরের ইমেজ ক্ষুন্ন করছে।    তাদের বিভিন্ন রকম বাড়াবাড়ি আযহারীকে আরো চাপে ফেলছে। 

আযহারীর ঘনিষ্ঠ এমন কিছু সুএ মতে, ভক্ত সেজে জামাত শিবিরের কিছু লোকজনের অতিউৎসাহী বাড়াবাড়ি আলেম ওলামাদের গলাগলি  নিয়ে মিযানুর রহমান আযহারী  নিজেও বিব্রত হয়েছেন ।       
সংসদে আযহারীকে নিয়ে যেভাবে আলোচনা শুরু হয়েছিল তাতে তার ওয়াজ বন্ধ হওয়ার আসংখ্যা ছিল।  কিছু মাহফিল অনুমতিও বাতিল করা হয়েছিল।  নিষিদ্ধ এড়াতে আগেভাগেই মালয়শিয়ায় চলে আসেন। এতে করে সবার সহানুভূতিও পাওয়া গেল আবার নিষিদ্ধ হওয়াও এড়ানো গেল।  সহানুভূতিটা আগামীতে কাজে লাগাবার কৌশল ছিল।  এমনিতেই তিনি লেখাপড়া করেন। তার হাতে সময়ও কম ছিল।    

উল্লেখ্য সম্প্রতি জনপ্রিয় বক্তা মিযানুর রহমান আযহারীর  ভক্ত সেজে সাধারণ পাবলিকের সাথে মিশে  কৌশলে  বিভিন্ন আলেম ওলামা বক্তাদের গালাগালি, ভিডিও এডিট করে চলছে  অপপ্রচার।  
ছবি বিকৃত করে দেশ ও বিদেশ থেকো জামাত শিবির পন্থী পেইজ সহ বেনামি পেইজে পোস্ট করে পরিস্থিতি ঘোলাটে করছে ।   একদিকে জামাতের অনুগত বক্তাদের প্রমোট করছে অপরদিকে অন্য আলেম ওলামা ও জনপ্রিয় বক্তাদের বিতর্কিত করার অপ কৌশল চালিয়ে যাচ্ছে।

No comments:

Post a Comment

Pages