প্রচার বিমুখ বক্তা আলহাজ্ব মাওলানা রুহুল্লাহ তালুকদার - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Monday, January 20, 2020

প্রচার বিমুখ বক্তা আলহাজ্ব মাওলানা রুহুল্লাহ তালুকদার

পৃথিবীতে কিছু কিছু মানুষ নিজেদের প্রচার বা জাহির করলেও কেউ কেউ থাকে প্রচার বিমুখ।অনেক বড় বড় আলেম ওলামা বুজুর্গ প্রচার বিমুখ হওয়ার কারণ লোক চক্ষুর অাড়ালে থাকে।বর্তমান যুগ হলো এমন যে,নিজের ঢোল নিজ বাজিয়ে ভাইরাল হচ্ছে।বয়ানের ময়দানে এখন সবাই ভাইরাল হতে চায় হোক তা ইসলাম বা শরিঅাত পরিপন্থী। সহজ কথায় যেভাবেই হোক ভাইরাল হতে হবে।এই কারণে অনেক বক্তা শরিয়াতের মিমাংশিত বিষয়ে ফতোয়া দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে।জন্ম দিচ্ছেন নতুন নতুন বিতর্কের। ওয়াজ মাহফিল হলো একটি যুগোপযোগী দাওয়াতের মাধ্যমে।যার মাধ্যমে লাখ লাখ মানুষ ইসলামের সঠিক জ্ঞান পাচ্ছেন।কিন্তু কিছু স্বল্পজ্ঞানী তরুণ আলেম মডেল বক্তা সেজে যা ইচ্ছে তা করছে।তোয়াক্কা করছে না হক্কানি অালেমদের কথা।তাদের রয়েছে বেশ ভক্ত ও সমর্থক। ঐ সব বক্তার পক্ষাবলম্বন করে হক্কানি বিজ্ঞ আলেমদের গালিগালাজ করতেও কুণ্ঠিতবোধ করেনা।তাই প্রচার বিমুখ  হক্কানি বিচক্ষণ, মেধাবী তরুণ আলেমদের বয়ানের মাঠে কাজ করা অতি প্রয়োজন মনে করছি।
আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা রুহুল্লাহ তালুকদার একজন ভালো বক্তা।গতানুগতিক অালোচনা বাদ দিয়ে বিপদগামী  তরুণ ও যুব সমাজ উপকৃত হয় এমন আলোচনায় তিনি বলতে গেলে পটু।ছাত্র রাজনীতি থেকে তিলে তিলে গড়ে উঠেছেন তিনি।তিনি ২০০৬-২০০৭ সালে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।সভাপতি থাকাকালীন তিনি এশিয়া মহাদেশের অন্যতম ইসলামী বিদ্যপীঠ জামিয়া জিরি থেকে দাওরায়ে হাদিস ( মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন।এর পর থেকে কাজ করে যাচ্ছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সাথে থেকে কাজ করছেন।গত ১৮-১৯ সালো তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সেক্রেটারি নির্বাচিত হন।
সঙ্গতকারণে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায় কাজ করতে  অপরাগতা জানালে সেক্রেটারি পথ থেকে অব্যহতি দেন বর্তমানে।তিনি চট্টগ্রাম পতেঙ্গা খিজির (আ) জামে মসজিদের খতিব হিসেবে নিযুক্ত আছেন।সাথে সাথে তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ পতেঙ্গা থানার সিনিয়র সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

এছাড়াও তিনি  ওলামা মাশায়েখ আইম্ম পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সদস্য,পতেঙ্গা হালিশহর ওলামা ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক  ও বাংলাদেশ কোরআন শিক্ষাবোর্ড চট্টগ্রাম এর পরিদর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।তিনি অভিজাত পরিবারের সন্তান হিসেবে চাল চলন ও আচার আচরণে আভিজাত্যের পরিচয় ফুটে উঠে।তাঁর পিতা হযরত মাওলানা আনোয়ার রহ ছিলেন চট্টগ্রাম বাঁশখালী থানার অন্তর্গত পুকুরিয়া মুখলেছিয়া এমদাদুল ইসলাম বালক বালিকা মাদরাসার সাবেক মোহতামিম।গর্বের বিষয় হলো তাঁদের ছয় ভাই সবাই আলেম ও হাফেজ।মূলত আলেম পরিবারের সন্তান হিসেবে তিনি অত্যন্ত ভদ্র ও নম্র।সহজে যে কারো মন জয় করতে পারে।রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক সংগঠনের কর্মীরা তাঁর প্রতি তুষ্ট।সহজ,সরল, মিষ্টভাষী একজন আলেম তিনি।প্রায় ২০১২ সালে  থেকে তাঁর সাথে উঠা বসা আমার।খুব স্বাভাবিকভাবেই তিনি কথা বলেন।সাম্প্রাতিক তিনি গাড়ি এক্সিডেন্ট করেছিলেন।আলহামদুলিল্লাহ এখন সুস্থ আছেন।গত ১৬ জানুয়ারি গাইবান্দা মাহফিল করে আসলেন।আজ ২০ জানুয়ারি মাহফিলে রওনা দিলেন কক্সবাজার জেলার চকরিয়ায়।প্রচার বিমুখ সদালাপী অালেম বড় ভাইটির জন্য দোয়া শুভকামনা অন্তহীন। 

লেখকঃনুর আহমদ সিদ্দিকী

No comments:

Post a Comment

Pages