চৌহালীতে শীর্তাত মানুষের পাশে নেই জনপ্রতিনিধিরা শীতের প্রকোপ বেড়েই চলছে - amarkhobor24.com

শিরোনাম

Home Top Ad


Saturday, December 21, 2019

চৌহালীতে শীর্তাত মানুষের পাশে নেই জনপ্রতিনিধিরা শীতের প্রকোপ বেড়েই চলছে

মোঃ ইমরান হোসেন (আপন) চৌহালী প্রতিনিধি: টানা কয়েক দিন দেশের বিভিন্ন স্থানের মত সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে বয়ে যাচ্ছে সৈত প্রবাহ। এ অঞ্চলে ৪ দিনেও দেখা মেলিনি সূর্যের মুখ। শীতের তীব্রতা এতোটাই প্রখর হয়ে দাড়িয়েছে যা মানুষের অসহনীয় পর্যায়ে এসে গেছে। মানুষ সঠিক সময় মত কোন কাজে বের হতে পারছে না। যার ফলে মানুষের স্বাভাবিক কার্যাবলি ব্যহত হচ্ছে। কৃষি প্রধান এই উপজেলার অধিকাংশ মালিক ঋন খেলাপি হওয়ার কারণে বেশিরভাগ কৃষি জমিতে চাষাবাদ বন্ধ থাকায় মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষের দূর্ভোগের সীমা ছেড়ে গেছে। শীতের বস্ত্র কেনার মত সাধ্য না থাকায় খড়কুটা দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে শীত নিধন করার চেষ্টা করছে । মধ্যম আয়ের মানুষগুলো ভীড় জমাচ্ছেন ফুটপাতের দোকান গুলোতে। যমুনার বুকে জেগে উঠা ঘুশুরিয়া, হিজুলিয়া, কাঁঠালিয়া,পয়লা, হাটাইল,হাপানিয়া চরে গিয়ে দেখা যায় খড়কুটো দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে অনেক জন এক সাথে জমাট বেঁধে শীত নিধন করার চেষ্টা করছে। কথা হয় নৌকার মাঝি মোঃ সাদ্দাম হকের সাথে সাধারণত সারাদিন ৫/৬বার এপার ওপার যাওয়া আশা করি শীতের প্রকোপ বাড়ায় সারাদিনে ৩ বার যাওয়া আশায় করেই তেলের টাকা হচ্ছে না, মানুষ কাজে যাচ্ছে না। এদিকে সরকারী-বেসরকারী পক্ষথেকে দেয়া হচ্ছেনা শীতবস্ত্র। এবিষয়ে উপজেলার উমারপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন মন্ডল জানান, আমারা চৌহালী উপজেলা চরাঞ্চলের মানুষ। নদী ভাঙ্গনের কারণে বেশিরভাগ মানুষ দরিদ্র, যেখানে দু বেলা খাবারের যোগান দিতে হিমসিম খেতে হয়। আর সেই এলাকার মানুষ কিভাবে শীতবস্ত্র কিনবে? এদিকে সরকারী শীতবস্ত্রের বরাধ্বকৃত কম্বল ইউপি চেয়ারম্যানগন পেলেও এ পযন্ত কেউ হাতে পাইনি । চৌহালী সদর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গনি মোল্লা জানান, চরাঞ্চলের মানুষের শীতের বস্ত্র কেনার মত সামর্থ নেই। তাই তারা প্রতিনিয়ত শীতের কষ্ট নিয়ে দিন পার করছে। এদের সহযোগিতা জন্য সমাজের বৃত্তবানদের এগিয়ে আসা দরকার। সেই সাথে যদি সরকারী বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসে তাহলে এই অসহায় মানুষগুলোর শীত কিছুটা হলেও লাঘব হবে। বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাহ্হার সিদ্দিকী বলেন, যারা গরিব মানুষ তাদের শীতের বস্ত্র নেই। প্রচন্ড শীতের কারণে মানুষ ঠিকমত কাজে বের হতে পারছে না। যদি সরকার সহ জনপ্রতিধি ও বৃত্তবান মানুষ এগিয়ে আসে তাহলে অসহায়দের শীত বস্ত্রের ব্যবস্থা হবে তবে এমন তিব্র শীতে সাবার এগিয়ে আশা নৈতিক দায়িত্ব মনেকরি । এ বিষয়ে চৌহালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মওদুদ আহমেদ - জানান, কিছু শীতবস্ত্র এসেছিল যা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে বিভিন্ন ইউনিয়নে পাঠানো হয়েছে। আশা করি খুব শিঘ্রই আরও কিছু শীতবস্ত্র আসবে এবং তা দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করা হবে।

No comments:

Post a Comment

Pages